বাংলাদেশে ৩৫ কোটি ডলার বিনিয়োগের প্রস্তাব দিল চীন

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে চীনা বাণিজ্যমন্ত্রীর বৈঠক

দুই দেশের পারস্পরিক স্বার্থে পণ্য বৈচিত্রকরণ ও রফতানি বৃদ্ধির জন্য বাংলাদেশের বিভিন্ন খাতে চীন ৩৫ কোটি মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করতে চায়।

চীনের সফররত বাণিজ্যমন্ত্রী গাও হুচেন গতকাল গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাত্কালে এ কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম বৈঠক শেষে জানান, চীনের মন্ত্রী বাংলাদেশ ও এ দেশের জনগণকে তার দেশের উন্নয়ন অংশীদার হিসেবে উল্লেখ করেন। চীনের বাণিজ্যমন্ত্রী বাংলাদেশে চীনের বিনিয়োগ সমন্বয় করতে একটি কমিটি গঠন করার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ জানান।

গাও হুচেন বলেন, বাংলাদেশ খুবই মানসম্পন্ন পাটজাত পণ্য উত্পাদন করে। চলতি বছরের প্রথমার্ধে বাংলাদেশ থেকে চীনে পাটজাত পণ্যের রফতানি ১০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। তিনি বলেন, ঢাকার অদূরে পূর্বাচলে বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশীপ এক্সিবিশন সেন্টার নির্মাণে দু’দেশের মধ্যে একটি বিনিময় নোট স্বাক্ষরিত হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, চীনের সঙ্গে বন্ধুত্বকে বাংলাদেশ খুবই মূল্য দিয়ে থাকে। তিনি বলেন, ঘনিষ্ঠ প্রতিরক্ষা ক্রয় সহযোগিতাসহ দু’দেশের সম্পর্ক খুবই শক্তিশালী। আঞ্চলিক যোগাযোগ প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা বলেন, অর্থনৈতিক সহযোগিতা ও সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ঢাকা বাংলাদেশ-চীন-ভারত-মিয়ানমার (বিসিআইএম)-এর মধ্যে যোগাযোগ জোরদারের ওপর গুরুত্ব দিয়ে থাকে।

বাংলাদেশের পোশাক খাতে চীনের বিনিয়োগ প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা বলেন, তাঁর সরকার চীনের অর্থনৈতিক ও শিল্পাঞ্চলের জন্য চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলায় ভূমি বরাদ্দ করেছে। এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী যৌথ উদ্যোগে পোশাক শিল্প প্রতিষ্ঠার ওপর গুরুত্ব আরোপ করে বলেন, তাঁর সরকার স্থানীয় বিনিয়োগের পাশাপাশি বিদেশি বিনিয়োগ আকর্ষণে ২২টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠা করেছে।