বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে উন্নতি করছে প্রতিনিয়ত

আকাশছোঁয়া পারফরম্যান্সে মৌসুম শেষ হল। টাইগাররা এখন রুই-কাতলাদের কাতারে। বড়রাই তা স্বীকার করছেন। তারপরও অনেকেই বলছেন বাংলাদেশকে দেশের বাইরে গিয়ে ভালো করতে হবে। সাবেক দুই অধিনায়ক শফিকুল হক হীরা ও রকিবুল হাসানের মতেও বাংলাদেশ এখন দ্রুত বড় দলের কাতারে উঠে আসছে-

শফিকুল হক হীরা
বাংলাদেশ এখন কাউকে ভয় পায় না। ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলছে বাংলাদেশ। ম্যাচে কীভাবে চাপ সামলাতে হয়, সেটা জেনে গেছে মাশরাফিরা। বাংলাদেশের এই উন্নতির জন্য বিসিবি সভাপতি, কোচ, অধিনায়ক এবং দলের সব খেলোয়াড়- সবাইকে ধন্যবাদ দিতে হয়। তবে ওয়ানডে ক্রিকেটে এ পরিবর্তনের জন্য মাশরাফির অধিনায়কত্ব বড় ভূমিকা রাখছে। টেস্টে আমরা এখনও বড় মাপের দল হয়ে উঠতে পারিনি ঠিকই, তবে বাংলাদেশ এগিয়ে যাওয়ার পথে রয়েছে। প্রতিনিয়ত উন্নতি করছে। সর্বশেষ তিনটি টেস্ট ম্যাচ পুরো খেলতে পারলে ভালো হতো। বৃষ্টির কারণে নিজেদের প্রমাণ করার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হয়েছে ছেলেরা। বড় দলগুলোর শিডিউল পেতে অনেক সময় কোন মৌসুম চলছে, এটা দেখার সুযোগ থাকে না। এবার যেভাবে বৃষ্টি হয়েছে, অনেক বছর তা হয়নি। যদি বড় দলগুলোর বিপক্ষে বর্ষা মৌসুম বাদ দিয়ে খেলা যায়, তাহলে ভালো হয়। এখন অস্ট্রেলিয়া সিরিজ। অস্ট্রেলিয়া ইংল্যান্ডের মাটিতে মোটেও ভালো করতে পারছে না। তাই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নিজেদের সেরাটা দেয়ার চেষ্টা করতে হবে। তাতে ভালো ফল আসতে পারে। বাংলাদেশ দলের যা পারফরম্যান্স, সেটা ধরে রাখার জন্য সব ধরনের কার্যক্রম ঠিক রাখতে হবে।

রকিবুল হাসান

টেস্ট ক্রিকেটে ছোট দলগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ যে দ্রুত উন্নতি করছে এটা এখন না বললেও চলবে। পারফরম্যান্স দিয়েই বাংলাদেশ সেটা দেখিয়ে দিয়েছে। তবে বিসিবিকে ধন্যবাদ দিতে হয় এত সিরিজ আয়োজন করার জন্য। এফটিপি না থাকায় কিছুটা সুবিধা হয়েছে। বিসিবি এরই মধ্যে অনেক বড় দলের সঙ্গে সিরিজ আয়োজন করতে পেরেছে। টানা কয়েকটি বড় দলের বিপক্ষে সিরিজ জেতার পর বাংলাদেশ এখন আÍবিশ্বাসী। বাংলাদেশ এখন পারফর্ম করেই ফল নিজেদের পক্ষে নিতে শিখেছে। তিনটি টেস্ট বৃষ্টির কারণে ড্র হয়েছে এটা ঠিক। তাতে বাংলাদেশের পয়েন্টও বেড়েছে। কিন্তু যদি কেউ বলতে চান বৃষ্টির কারণে ড্র হয়েছে, পয়েন্ট বেড়ে লাভ কী, তাহলে তারা ভুল বলছেন। পাঁচ দিন খেলা না হওয়ায় বাংলাদেশেরই বেশি ক্ষতি হয়েছে। বাংলাদেশের সামনে এখন এই পারফরম্যান্স ধরে রাখাটা চ্যালেঞ্জ।