দাউদকান্দিতে স্থানীয়ভাবে তৈরি ড্রোন উড্ডয়ন

কুমিল্লা দাউদকান্দি উপজেলার জুরানপুর বঙ্গবন্ধু মাঠে আজ শনিবার সকালে পরীক্ষামূলকভাবে স্থানীয়ভাবে তৈরি একটি ড্রোন উড্ডয়ন করা হয়েছে। এ খবর শুনে বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীসহ আশপাশের গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ সকাল থেকে অপেক্ষা করতে থাকে। একপর্যায়ে ড্রোন নিয়ে মাঠে হাজির হন ডিকে টেকনোলজি নামে একটি প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার জুলফিকার আলী ও দাউদকান্দি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মেজর (অব.) মোহাম্মদ আলী সুমন।

জুলফিকার আলী বলেন, “এটি কোনো ধ্বংসকারী বা মানুষ হত্যাকারী ড্রোন নয়, এটি মানুষের সেবাদানকারী ড্রোন। বর্তমান সরকারের পৃষ্ঠপোষকতা পেলে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার আরো একধাপ এগিয়ে যাবে বাংলাদেশের গ্রাম-গঞ্জ। এর সাহায্যে সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের মাঠপর্যায়ের কার্যক্রমগুলো নিজ দপ্তরে বসেই খুব অল্প সময়ের মধ্যে পর্যবেক্ষণ করা যাবে। বিশ্বের শক্তিশালী উন্নত দেশগুলো যখন ড্রোনকে পেশিশক্তির কাজে ব্যবহার করছে, সেখানে দেশ সেবার কাজে এ ড্রোন ব্যবহার করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে পারে বাংলাদেশ। এর সাহায্যে কৃষক তার চাষ করা ফসলের অবস্থা জানতে পারবেন, সমস্যা হলে কয়েক মিনিটের মধ্যে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা জমিতে না এসে ড্রোনের সাহায্যে তা সমাধানের পরামর্শ দিতে পারবেন। মহাসড়কে যানজট নিরসনে হাইওয়ে পুলিশের ওয়াচ টাওয়ারের চেয়ে দ্রুত কাজ করবে এ ড্রোন।”

দাউদকান্দি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মেজর (অব.) মোহাম্মদ আলী সুমন বলেন, “বাংলাদেশের মডেল হিসেবে সর্বপ্রথম আমার উপজেলায় এ ড্রোন পরীক্ষামূলক ব্যবহার করার জন্য জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে মন্ত্রণালয়ে একটি প্রস্তাবনা পাঠাবো।” অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, দাউদকান্দি উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রোজিনা আক্তার, তিতাস প্রেসক্লাব সভাপতি মো. ওমর ফারুক মিয়াজী, দাউদকান্দি প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো. জাকির হোসেন হাজারী এবং সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আলমগীর হোসেন।