এসএমইতে অর্থায়নের জন্য ৫০ কোটি ডলারের তহবিল করা হবে : গভর্নর

এসএমই উদ্যোক্তাদের পুনঃ অর্থায়নের জন্য ৫শ’ মিলিয়ন ডলারের একটি তহবিল চালু করা হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান। তিনি বলেন, এটা করা গেলে সভ্যতার কলঙ্ক দারিদ্র্যকে ঐক্যবদ্ধভাবে দূর করা সম্ভব হবে। ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তা উন্নয়নের লক্ষ্যে যাত্রা শুরু করা আই অ্যাম এসএমই অফ বাংলাদেশ নামে একটি প্রতিষ্ঠানের উদ্বোধনকালে তিনি এ কথা বলেন।বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অফ ব্যাংক ম্যানেজমেন্টের (বিআইবিএম) মহাপরিচালক তৌফিক আহমেদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন- বাংলাদেশে নিযুক্ত ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) রাষ্ট্রদূত পিয়েরি মায়াদুন, ভারতের হাইকমিশনার পঙ্কজ সরন, ঢাকা চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি হোসেন খালেদ, ন্যাশনাল স্মল স্কেল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশন অফ ইন্ডিয়ার চেয়ারম্যান রবীন্দ্রনাথ, বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর এসকে সুর চৌধুরী, এসএমই ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান কেএম হাবিব উল্লাহ, আই অ্যাম এসএমই অব ইন্ডিয়ার চেয়ারম্যান রাজিভ চাওলা, আই অ্যাম এসএমই অফ বাংলাদেশের চেয়ারম্যান সাইদ আহমেদ কিরণ প্রমুখ। আই অ্যাম এসএমই অফ বাংলাদেশের পক্ষে স্বাগত বক্তব্য দেন বাংলাদেশ ব্যাংকের এসএমই বিভাগের পরামর্শক সুকোমল সিংহ চৌধুরী।গভর্নর বলেন, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। এর বিকাশের জন্য সব ধরনের ব্যবসায়ী সংগঠনের এক সঙ্গে কাজ করা প্রয়োজন। দেশের আর্থিক অবস্থার উন্নয়নে বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সর্ম্পক ক্রমেই বিকশিত হচ্ছে উল্লেখ করে বাংলাদেশ ব্যাংক গভর্নর বলেন, ইউরোপীয় ইউনিয়নও আমাদের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে।আতিউর রহমান বলেন, নারীর ক্ষমতায়ন হলে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের উন্নয়নে নারীরাই অগ্রগামী ভূমিকা পালন করবে। এজন্য সরকারের অঙ্গ প্রতিষ্ঠানগুলোকে হাতে হাত মিলিয়ে এগিয়ে যাওয়া দরকার। অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বাংলাদেশ ব্যাংক, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অফ ব্যাংক ম্যানেজমেন্ট (বিআইবিএম) এবং এসএমই সংশ্লিষ্ট ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর সহযোগিতায় এ প্রতিষ্ঠানটি যাত্রা শুরু করল। আই অ্যাম এসএমই অফ বাংলাদেশ একটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠানটি। এর কাজ হলো এসএমই উদ্যোক্তাদের ব্যবসার সঠিক দিক নির্দেশনা প্রদান ও যে কোনো সমস্যার সমাধানে উদ্যোগী হওয়া, ব্যবসার পরিকল্পনা প্রনয়ন, সহজ শর্তে স্বল্প সুদে ব্যাংক ঋণ পেতে উদ্যোক্তাদের প্রস্তুত করা, এসএমই সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া।উদ্যোক্তাদের সার্বক্ষণিক কাউন্সিলিংসহ নারী উদ্যোক্তাদের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে ভূমিকা পালন এবং এসএমই উদ্যোক্তাদের ওয়ান স্টপ সলিউশন সেন্টার হিসেবে কাজ করবে প্রতিষ্ঠানটি।