বিজিবির অভিযানে ৭৯ কোটি টাকার চোরাচালান ও মাদকদ্রব্য জব্দ

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) চলতি বছরের জুন মাসে দেশের সীমান্ত এলাকাসহ অন্যান্য স্থানে অভিযান চালিয়ে সর্বমোট ৭৯ কোটি ৭৩ লাখ ৪৯ হাজার ৪৯৭ টাকা মূল্যের বিভিন্ন প্রকারের চোরাচালান ও মাদকদ্রব্য আটক করতে সক্ষম হয়েছে। আটককৃত মাদকের মধ্যে রয়েছে ১ লাখ ৬৩ হাজার ১৬৫টি ইয়াবা ট্যাবলেট, ৪২ হাজার ১৫৮ বোতল ফেনসিডিল, ৮৭৫ কেজি গাঁজা, ১৮ হাজার ১০৪ বোতল বিদেশি মদ, ১ কেজি ৫০০ গ্রাম হেরোইন, ১ লাখ ৫৪ হাজার ২৬৮টি বিভিন্ন প্রকারের উত্তেজক ট্যাবলেট, ১০ হাজার ৫৬২টি নেশাজাতীয় ইনজেকশন এবং ১৩ লাখ ৪৫ হাজার ১৯২টি বিভিন্ন প্রকারের ট্যাবলেট। এ ছাড়া আটককৃত অন্যান্য চোরাচালান দ্রব্যের মধ্যে ২০ হাজার ৬০২টি শাড়ি, ৯ হাজার ৪৩৪টি থ্রি-পিস, ১ লাখ ৮০ হাজার ৪৩৬ মিটার থান কাপড়, ২০ হাজার ৪০৯টি তৈরি পোশাক, ৪৫৮টি বিভিন্ন প্রকারের যন্ত্রাংশ, ৩ হাজার ৬৬৬ সিএফটি কাঠ এবং ২৩টি কষ্টিপাথরের মূর্তি জব্দ করা হয়। গত মাসে বিজিবির অভিযানে উদ্ধারকৃত অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে ৮টি পিস্তল, ১টি বন্দুক, ২টি ককটেল, ১২ রাউন্ড গুলি এবং ৪টি ম্যাগজিন। গত জুন মাসে বিজিবির অভিযানে চোরাচালানে জড়িত থাকার অভিযোগে ১৪০ জনকে আটক করে থানায় সোপর্দ এবং এ-সংক্রান্ত ২ হাজার ৮৭২টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। গত মাসে সীমান্ত পথে ১৬৩ জন মায়ানমার নাগরিকের অবৈধ অনুপ্রবেশ প্রতিহত করা হয়েছে। এ ছাড়া উল্লিখিত সময়ে সীমান্ত পথে পাচারকালে ২১ জন নারী ও ১২ জন শিশুকে উদ্ধারসহ ১ জন পাচারকারীকে আটক এবং এ-সংক্রান্ত ১৪টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। বিজ্ঞপ্তি।