বিদেশে কৃষি জমির দীর্ঘমেয়াদী লীজ গ্রহণে সরকার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেছেন, দেশের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে বিদেশে কৃষি জমির দীর্ঘমেয়াদী লীজ গ্রহণের ব্যাপারে সরকার বেশ কিছু পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে, যা বাস্তবায়নের জন্য বর্তমানে পরিকল্পনা তৈরি করা হচ্ছে।
তিনি আজ সংসদে সরকারি দলের সদস্য নিজাম উদ্দিন হাজারীর এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ইতোমধ্যে বেসরকারি পর্যায়েও কিছু উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। জাম্বিয়ার ‘কন্ট্রাক্ট ফার্মিং’-এ নিয়োজিত বাংলাদেশ কোম্পানি ‘ভাটিবাংলা এগ্রিটেক’ সেদেশে কৃষি প্রকল্পে ১১ জন বাংলাদেশী কৃষককে নিয়োগের ব্যাপারে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সহায়তায় সরকারের ছাড়পত্র পেয়েছে।

মাহমুদ আলী বলেন, আফ্রিকার বিভিন্ন দেশে ‘কন্ট্রাক্ট ফার্মিং’ বিপুল সম্ভাবনার প্রেক্ষিতে এটাই প্রথম বাংলাদেশী কৃষিকর্মী নিযুক্তির ঘটনা এবং একটি শুভ সূচনা।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের ‘নিটল-নিলয় গ্রুপ’ এবং ‘ভাটিবাংলা এগ্রিটেক লি:’ আফ্রিকার আরও কয়েকটি দেশে প্রায় ৪০ হাজার হেক্টর জমি লীজ গ্রহণের মাধ্যমে খাদ্যশস্য উৎপাদনের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। এসব খাদ্যশস্য উৎপাদন শেষে তা বাংলাদেশে বিক্রয় করা যাবে।

তিনি বলেন, এক্ষেত্রে ‘নিটল-নিলয় গ্রুপ’ উগান্ডাতে ১০ হাজার হেক্টর জমি এবং আল-ফালাহ গ্রুপের ‘এগ্রোটেক’ তানজানিয়ায় ৩০ হাজার হেক্টর জমি লীজ গ্রহণের ব্যাপারে উগান্ডা ও তানজানিয়া সরকারের সাথে আলাপ-আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে এবং এ ব্যাপারে চুক্তি স্বাক্ষরের অপেক্ষায় রয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, এসব লীজ গ্রহণকৃত জমিতে অনেক বাংলাদেশী শ্রমিকের কর্মসংস্থান সৃষ্টির সুযোগ রয়েছে। এতে একদিকে যেমন দেশের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত হবে অপরদিকে বেকার জনগোষ্ঠীর দীর্ঘমেয়াদী কর্মসংস্থান হবে।