ওইসিডি’র রেটিংয়ে বাংলাদেশের মান বেড়েছে

যুক্তরাষ্ট্র, পশ্চিম ইউরোপ ও স্ক্যান্ডেনেভিয়ার দেশগুলো, সুইজারল্যান্ড ও জাপানের মতো দেশের সমন্বয়ে গড়া ‘অর্গানাইজেশন ফর ইকোনমিক কো-অপারেশন এন্ড ডেভেলপমেন্টের’ (ওইসিডি) বিন্যাসকরণ কমিটির সভায় বাংলাদেশের সার্বিক ‘কান্ট্রি রেটিং’ ৬ থেকে ৫ এ উন্নীত করা হয়েছে। সম্প্রতি সুইজারল্যান্ডের জুরিখে অনুষ্ঠিত এক সভায় এ ঘোষণা দেয়া হয়। বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান, এসইআরভি’র পরিচালক হার্বার্ট ওয়াইট ও একটি উচ্চপদস্থ প্রতিনিধি দল, বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা বিনিয়োগ বিভাগের মহাব্যবস্থাপক এ. এন. এম আবুল কাশেম সভায় অংশগ্রহণ করেন।

সভায় বলা হয়, রাজনৈতিক অস্থিরতা ও দুর্বল বহি:চাহিদা বিরাজমান সত্ত্বেও এক দশকেরও বেশি সময় ধরে বাংলাদেশের সহনশীল অর্থনীতির সাথে উচ্চ ও স্থিতিশীল অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বাংলাদেশের রেটিং উন্নীতকরণের মূল কারণ হিসেবে বিবেচিত হয়েছে। এই বিন্যাসকরণে আশ-পাশের দেশগুলোর চেয়ে বাংলাদেশ এগিয়ে রয়েছে। দীর্ঘ সময় ধরে চলমান সামষ্টিক অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতার কারণে বাংলাদেশ একটি অতিমাত্রায় উন্নয়ন সাহায্য প্রার্থী দেশ থেকে একটি নতুন অগ্রসরমান বাজারে পরিণত হয়েছে।

রেটিং বিষয়ে গভর্নর ড. আতিউর রহমান বলেন, বাংলাদেশের এ উন্নত শ্রেণি বিন্যাসকরণ ধীরে ধীরে উন্নত অর্থনীতির (ইসিএভুক্ত) দেশগুলোকে বাংলাদেশের বিভিন্ন বিনিয়োগ প্রকল্প যেমন অবকাঠামো, তৈরি পোশাক শিল্প, ওষুধ ও চামড়া শিল্প — এসব খাতে ঋণ দিতে উদ্বুদ্ধ করবে। বাংলাদেশের উচ্চ অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি এবং অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতার জন্যে সহায়ক নীতিমালা বজায় রাখা হবে বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন।