বাংলাদেশের উন্নয়নে সন্তোষ প্রকাশ ফ্রান্সের

বিশেষ প্রতিনিধি, দ্য রিপোর্ট : ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রী লরেন ফাবিউস বাংলাদেশের অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। পাশাপাশি সকল ক্ষেত্রে বাংলাদেশের প্রতি ফ্রান্সের সহযোগিতা অব্যাহত রাখার আশ্বাস ব্যক্ত করেছেন।

ফ্রান্স সফররত বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মন্ত্রী লরেন ফাবিউস এ আশ্বাস ব্যক্ত করেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে বুধবার দুপুরে গণমাধ্যমে বার্তা পাঠিয়ে এ তথ্য জানানো হয়।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, অত্যন্ত আন্তরিক ও সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত বৈঠকে দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দ্বিপাক্ষিক, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক সকল গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে খোলামেলা আলোচনা করেন। ফরাসী পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশে দারিদ্র্য দূরীকরণ, নারী শিক্ষার প্রসার, নারীর ক্ষমতায়ন, মাতৃ মৃত্যু ও শিশু মৃত্যুর হার হ্রাসকরণসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের অর্জিত সাফল্যের ভূয়সী প্রশংসা করেন। আলোচনার সময় দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্প্রসারণ এবং অধিকতর সাংস্কৃতিক বিনিময়ের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন তিনি।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী BBIN, BCIM ও BIMSTEC-সহ বিভিন্ন উদ্যোগের মাধ্যমে প্রতিবেশী দেশসমূহের মধ্যে যোগাযোগ ও সহযোগিতা বাড়ানোর বিষয়ে বাংলাদেশের সক্রিয় ভূমিকার বিষয়ে ফরাসী পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে অবহিত করেন। ফরাসী পররাষ্ট্রমন্ত্রী লরেন ফাবিউস আঞ্চলিক শান্তি ও সহযোগিতা বৃদ্ধির ক্ষেত্রে বাংলাদেশের উদ্যোগের প্রশংসা করেন।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আগামী ডিসেম্বরে প্যারিসে অনুষ্ঠিতব্য বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলন আয়োজনের জন্য ফরাসী সরকারকে অভিনন্দন জানিয়ে এ সম্মেলনের সাফল্য কামনা করেন। এক্ষেত্রে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে ফ্রান্সকে সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস দেওয়া হয়। ফরাসী পররাষ্ট্রমন্ত্রী জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত চলমান আন্তর্জাতিক আলোচনায় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভূমিকার প্রশংসা করেন। ফরাসী পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিশ্ব জলবায়ু পরিবর্তনের পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশ একটি ঝুঁকিপূর্ণ দেশ এবং এ কারণে ফ্রান্স প্যারিসে অনুষ্ঠিতব্য জলবায়ু সম্মেলনে বাংলাদেশের মতামতকে গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করবে।

সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে লড়াই করার বিষয়ে উভয় দেশ একযোগে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করে। এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফ্রান্সের Charlie Hebdo পত্রিকা অফিসে সন্ত্রাসী হামলার অব্যবহিত পর হামলার কঠোর নিন্দা জানান। সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ফ্রান্সের সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রেরিত বার্তার বিষয়টি জোরালোভাবে পুনর্ব্যক্ত করেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী বিএনপি-জামায়াত পরিচালিত জঙ্গি তৎপরতাসহ নানাবিধ সহিংস কর্মকাণ্ড, সাধারণ মানুষের জীবন ও সম্পত্তির ক্ষতিসাধনের মতো অমানবিক কর্মসূচির বিষয়সমূহ ফরাসী পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে অবহিত করেন। বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ প্রসঙ্গে বিএনপি-জামায়াত পরিচালিত সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের বিষয়ে ইউরোপিয়ান পার্লামেন্টে গৃহীত দুটি প্রস্তাবের কথা উল্লেখ করে বলেন, এ ধরনের হিংসাত্মক কর্মকাণ্ড গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থার পরিপন্থী।

ফরাসী পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশের সঙ্গে অর্থনৈতিক সহযোগিতা বৃদ্ধিসহ সার্বিক ক্ষেত্রে দুই দেশের সম্পর্কোন্নয়নের বিষয়ে গভীর আগ্রহ প্রকাশ করেন। লরেন ফাবিউস বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে জানান, তিনি এবং জার্মানীর পররাষ্ট্রমন্ত্রী আগামী সেপ্টেম্বর মাসে একসঙ্গে বাংলাদেশ সফর করবেন। বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে লরেন ফাবিউস বাংলাদেশ সফরকালে ফরাসী শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠান MEDEF-এর একটি প্রতিনিধি দল সঙ্গে নিয়ে সফরের আশ্বাস দেন।

ফরাসী পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও জানান, প্রস্তাবিত বাংলাদেশ সফরকালে তিনি ও জার্মানীর পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকায় নির্মাণাধীন ফরাসী-জার্মান যৌথ দূতাবাস ভবন উদ্বোধন করবেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলী প্যারিসে অবস্থিত প্রাচ্য ভাষা ও সংস্কৃতি শিক্ষা ও গবেষণার ঐতিহ্যবাহী প্রতিষ্ঠান INALCO-এর বাংলা বিভাগ পরিদর্শন করেন। INALCO প্রধান মিসেস ম্যানুএল ফ্রাঙ্ক এবং বাংলা বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ফিলিপ বেনওয়া পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে স্বাগত জানান। পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলা ভাষার অধ্যাপক ও ছাত্রছাত্রীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।