তিন ফরম্যাটেই বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব

সর্বশেষ আইসিসির প্রকাশিত র‌্যাংকিংয়ে টেস্ট, ওয়ানডে ও টি২০ এই তিন ধরনের ক্রিকেটেই আবারও বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার হলেন সাকিব। ওয়ানডেতে শ্রীলংকার তিলকারতেœ দিলশানকে সরিয়ে শীর্ষে উঠে গেছেন বাংলাদেশের এ অলরাউন্ডার। টেস্ট ও টি২০-তে আগেই শীর্ষ অলরাউন্ডার ছিলেন সাকিব। কিন্তু রেটিং পয়েন্টে এগিয়ে থাকায় ওয়ানডে অলরাউন্ডারের শীর্ষ মুকুটটি ছিল দিলশানের দখলে। কদিন আগে ঘরের মাটিতে ভারতের বিপক্ষে সিরিজে ব্যাট-বলে ভালো পারফরম করে ওয়ানডেতেও উঠে এলেন সাকিব। এর আগে ৪০৪ পয়েন্ট নিয়ে এগিয়ে ছিলেন লংকান অলরাউন্ডার দিলশান। সাকিবের রেটিং পয়েন্ট ছিল ৩৯৮।
ভারতের বিপক্ষে তিন ওয়ানডেতে দুটি হাফসেঞ্চুরিসহ ১২৩ রান করেছেন। গড়ে ৬১.৫০। মুস্তাফিজের ‘দাপটে’ উইকেট তেমন না মিললেও মাত্র ৩ উইকেট পেয়েছেন সাকিব। তাতেই তার রেটিং পয়েন্ট বেড়ে হয়েছে ৪০৮। তবে পাকিস্তানের বিপক্ষে ৫ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ আছে শ্রীলংকার। সেই সিরিজে আবারও সাকিবকে সরিয়ে দিতে চেষ্টা করবেন দিলশান। ব্যবধানটিও ৪ পয়েন্টের। সিরিজ খারাপ করলে দিলশানের পয়েন্ট কমতেও পারে। অবশ্য টেস্ট ও টি২০-এর অলরাউন্ডার র‌্যাংকিং নিয়ে নিশ্চিত থাকতে পারেন সাকিব। সেখানে সাকিব তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বীর সঙ্গে ব্যবধানটি বেশ বড়ই। অলরাউন্ডার র‌্যাংকিংয়ের পাশাপাশি ওয়ানডে বোলারদের র‌্যাংকিংয়ের আটে আছেন সাকিব। টি২০ বোলারদের র‌্যাংকিংয়ে তার অবস্থান ছয়ে। টেস্ট ব্যাটসম্যান র‌্যাংকিংয়ে তার অবস্থান ২৯। বাংলাদেশিদের মধ্যে সবার ওপরে মুমিনুল (২৪)। ওয়ানডে ব্যাটসম্যান র‌্যাংকিংয়ে সাকিব আছেন ৩১ নম্বরে। বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সবার ওপরে আছেন মুশফিক (২১)। টেস্ট বোলারদের র‌্যাংকিংয়ে সাকিব আছেন ১৬-তে। মাত্র তিনটি ওয়ানডে খেলেই বোলারদের র‌্যাংকিংয়ে জায়গা করে নিয়েছেন মুস্তাফিজ। ৪০৮ পয়েন্ট নিয়ে ৮৮ নম্বরে তার অবস্থান।
এ নিয়ে তৃতীয়বার তিন ফরম্যাটের ক্রিকেটে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার হলেন সাকিব। ইতিহাসের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে তিন ফরম্যাটের ক্রিকেটে র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষে উঠে এসেছিলেন এ বছর জানুয়ারিতে। কিন্তু মাত্র ১০ দিন ছিল তার সেই রাজত্ব। ওয়ানডেতে সাকিবকে দুইয়ে ঠেলে দেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস। গত বিশ্বকাপের আগে আবারও শীর্ষে উঠেন সাকিব। কিন্তু বিশ্বকাপে বেশ ভালো খেলে দিলশান উঠে যান ১ নম্বরে। কয়েক মাস অপেক্ষার পর রাজত্ব ফিরে পেলেন সাকিব।