৪ হাজার ৬শ মেগা. বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনে এমওইউ স্বাক্ষর

ক্রমবর্ধমান বিদ্যুতের চাহিদা মেটাতে ৪ হাজার ৬শ মেগাওয়াট ক্ষমতার দুটি বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের লক্ষ্যে ভারতের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষর করেছে বাংলাদেশ। গতকাল দুপুরে রাজধানীর বিদ্যুৎ ভবনে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিপিডিবি) এবং ভারতের রিলায়েন্স পাওয়ার লিমিটেড ও আদানি পাওয়ার লিমিটেডের মধ্যে এই এমওইউ স্বাক্ষর হয়। বিপিডিবির সচিব এম জহিরুল হক, রিলায়েন্স পাওয়ার লিমিটেডের ভাইস প্রেসিডেন্ট স্বামী কে গুপ্তা এবং আদানি পাওয়ার লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ভিনেত এস জাইন তাদের নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে এমওইউ’তে স্বাক্ষর করেন।অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এম তাজুল ইসলাম, বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব মনোয়ার ইসলাম, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের সচিব এম আবু বক্কর সিদ্দিক উপস্থিত ছিলেন। চুক্তি অনুযায়ী ভারতের রিলায়েন্স গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান রিলায়েন্স পাওয়ার লিমিটেড তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলএনজি) ভিত্তিক ৩ হাজার মেগাওয়াট উৎপাদন ক্ষমতা সম্পন্ন বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করবে। কোম্পানিটি বিদ্যুৎকেন্দ্রের পাশাপাশি এলএনজি টার্মিনাল, স্টোরেজ ট্যাংক ও রি-গ্যাসিফিকেশন ইউনিট স্থাপন করবে। এতে বাংলাদেশে তাদের সম্ভাব্য বিনিয়োগের পরিমাণ দাঁড়াবে ৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। ঠিক কোথায় এ বিদ্যুৎকেন্দ্রটি স্থাপন করা হবে, তা এখনও নির্ধারিত হয়নি। তবে প্রাথমিক বিবেচনায় রাখা হয়েছে মহেশখালীকে। খুব শীঘ্রই দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে স্থান নির্বাচন করা হবে। অন্যদিকে আদানি গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান আদানি পাওয়ার প্লান্ট বাংলাদেশের মহেশখালী অথবা অন্য কোন সুবিধাজনক স্থানে ১ হাজার ৬শ’ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা সম্পন্ন কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করবে।বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী অনুষ্ঠানে বলেন, সরকার ভিশন-২০২১ অনুযায়ী ২০২১ সালের মধ্যে সমগ্র দেশ বিদ্যুতের আওতায় নিয়ে আসার জন্য কাজ করে যাচ্ছে। বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য প্রাথমিক জ্বালানি উৎস বহুমুখীকরণে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে কৌশলগত লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রতিবেশী ও বন্ধুপ্রতিম দেশের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয়, ত্রিপক্ষীয় ও আঞ্চলিক সহযোগিতার মাধ্যমে বিদ্যুৎ উৎপাদনের উদ্যোগ নিয়েছে। প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে সরকার ৭০ ভাগ লোককে বিদ্যুতের আওতায় নিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছে। সরকার দেশব্যাপী সব শিল্প কারখানা এবং খুচরা গ্রাহককে বিদ্যুৎ সংযোগ দিচ্ছে।