‘৫ বছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধি বাড়ছে ২ শতাংশ’

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

আগামী পাঁচ বছরে সারাদেশে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপন ও মেগা প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন করা গেলে দেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি দেড় থেকে দুই শতাংশ বেড়ে যাবে বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী আহম মুস্তফা কামাল। তিনি বলেন, এতে করে দেশব্যাপী যেমন সুসম উন্নয়ন হবে তেমনি দেশের অর্থনীতি ঢাকা ও চট্টগ্রামকেন্দ্রিক না হয়ে সব জায়গায় ছড়িয়ে পড়বে। এ বছরই ঢাকা-চট্টগ্রাম ও ঢাকা-ময়মনসিংহ চার লেন সড়ক সম্পন্ন হবে। পদ্মা সেতুর কাজ এখন দৃশ্যমান। রামপাল, পায়রা ও মাতারবাড়িতে বিদ্যুৎ প্লান্ট নির্মাণ কাজ এগিয়ে চলছে। পাশাপাশি শীঘ্রই পায়রা ও মহেশখালীতে গভীর সমুদ্র বন্দর স্থাপিত হবে বলেও জানান তিনি।
গতকাল রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসির সভা কক্ষে আইএমএফ’র উচ্চ পর্যায়ের এক প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান। আইএমএফ’র এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের ডেপুটি ডিভিশন চিফ রড্রিগো কুরেরোর নেতৃত্বে এ বৈঠকে আইএমএফ’র বাংলাদেশের আবাসিক প্রতিনিধি স্টেলা কানেডেরাসহ উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তা, পরিকল্পনা সচিব সফিকুল আজম, পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য ড. সামছুল আলমসহ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
বাংলাদেশকে আগামীতে বিনিয়োগের অন্যতম প্রধান জায়গা উল্লেখ করে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে ২৪ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে। তখন আমাদের বিনিয়োগ নিয়ে কোন সমস্যা থাকবে না। সম্প্রতি জাপান এক্সপোর্ট ট্রেডিং রিসার্স অরগাইজেশন (জেটরো) বলেছে, চীন ও থাইল্যান্ডে জাপানের ১২ হাজার প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানকে যদি অন্য দেশে স্থানান্তর করা হয় তবে প্রতিষ্ঠান মালিকদের ৭২ ভাগ ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের ৭১ ভাগ এক্ষেত্রে বাংলাদেশকে বেছে নেয়ার কথা বলেছেন। এছাড়া ২০৫০ সালে বাংলাদেশ ২৩তম অর্থনীতির দেশে পরিণত হবে। তখন বাংলাদেশের অবস্থান অস্ট্রেলিয়া ও মালয়েশিয়ার ওপরে থাকবে।