মানবিক সূচকে বাংলাদেশের উন্নতি অনেক দেশের তুলনায় বেশি: অমর্ত্য সেন

মানবিক সূচকে বাংলাদেশের উন্নতি অনেক দেশের তুলনায় বেশি: অমর্ত্য সেন

অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার বিজয়ী অমর্ত্য সেন বলেছেন, টেকসই ও সার্বজনীন অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য মানবিক প্রগতি (মানব সূচকের উন্নতি) প্রয়োজন। মানবিক প্রগতি নিশ্চিত হলে অর্থনৈতিক প্রগতি সাধিত হয়। মানবিক প্রগতি ছাড়াও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি হতে পারে, তবে মানবিক প্রগতি ছাড়া অর্থনৈতিক প্রগতি হলে সমাজে বঞ্চনা তৈরি হয়। বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির পেছনে মানবিক সূচকের উন্নতি খুব কাজে দিয়েছে। মানবিক সূচকে বাংলাদেশের উন্নতি অনেক দেশের তুলনায় বেশি।

সোমবার রাজধানীর খামারবাড়িতে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনে ‘অর্থনৈতিক প্রগতি ও মানবিক প্রগতি’ শীর্ষক একক বক্তৃতা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি) এবং প্রথম আলো এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

বক্তব্যশেষে অমর্ত্য সেন এবং জঁ দ্রেজের যৌথভাবে রচিত ‘ভারত: উন্নয়ন ও বঞ্চনা’ বইয়ের মোড়ক উম্মোচন করা হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সিপিডির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান ড. রেহমান সোবহান।

ভারতের তুলনায় বাংলাদেশের মানবিক সূচকের অগ্রগতির বিষয়ে অমর্ত্য সেন বলেন, ১৯৪৭ সালের পর থেকে ভারতে ক্রমাগত অর্থনৈতিক উন্নতি হলেও মানবিক প্রগতি নিশ্চিত হয়নি। আর বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নতি ও মানবিক সূচক সমান্তরালে হয়েছে। তবে ১৯৯০ সালে মানবিক সূচকে বাংলাদেশ ভারতের তুলনায় পিছিয়ে থাকলেও বর্তমানে এগিয়ে গেছে। মানবিক সূচকে বাংলাদেশকে আরও উন্নতি করতে হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

অমর্ত্য সেন বলেন, মানবিক প্রগতির নিশ্চিত করার জন্য দেশের সব নাগরিকের জন্য শিক্ষা ও স্বাস্থ্যসহ মানব উন্নয়ন সংশ্লিষ্ট বিষয়ের উন্নতি করা দরকার। এর মধ্যে রয়েছে শিশু মাত্যৃহার কমানো, শিশু অপুষ্টি হ্রাস, মাতৃমৃত্যু হার কমানো, স্কুলে অংশগ্রহণ বাড়ানো এবং নারী উন্নয়ন সহ নানা মানবিক সূচক। তিনি বলেন, একটি দেশে শিক্ষা ও স্বাস্থ্য উন্নয়নে সরকারকে প্রধান ভূমিকা পালন করতে হয়। সরকার প্রধান ভূমিকা পালন করলে সমাজের নিম্ন ও স্বল্প আয়ের লোকেরাও সেবার আওতায় আসতে পারে।

গণতন্ত্র বিষয়ক এক প্রশ্নের জবাবে বাংলাদেশে জন্ম নেয়া ভারতীয় অর্থনীতিবিদ ও দার্শনিক অমর্ত্য সেন বলেন, গণতন্ত্র হলেই অর্থনৈতিক উন্নতি হবে কিংবা গণতন্ত্র না থাকলে উন্নতি হবেই না, এমন সার্বজনীন কথা বলা যাবে না। একেক দেশের ক্ষেত্রে এটা একেক রকম হবে। তবে যেভাবেই হোক অসাম্য বা বৈষম্য কমাতে পারলে উন্নয়ন ত্বরান্বিত হয়। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে গণতন্ত্রে অসাম্য বাড়ছে। তাছাড়া গণতন্ত্রে আলোচনা ও তর্ক-বিতর্ক না থাকলে উন্নতি হয় না। কিন্তু দিনে দিনে আলোচনা ও তর্ক-বিতর্ক কমে যাচ্ছে।