ঢাকার উন্নয়নে কুয়েত ফান্ড দেবে ২৭৯ কোটি টাকা

রাজধানী ঢাকার অবকাঠামো উন্নয়নে আর্থিক সহায়তা দেবে কুয়েত ফান্ড। এ বিষয়ে সংস্থাটির সঙ্গে ঋণচুক্তি করেছে সরকার। শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে বাংলাদেশ সরকারের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ মেজবাহ উদ্দিন ও কুয়েত ফান্ড ফর আরব ইকোনমিক ডেভেলপমেন্টের উপমহাপরিচালক হামাদ আল ওমর চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। চুক্তির আওতায় ২৭৯ কোটি ৫১ লাখ টাকা পাবে বাংলাদেশ।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ইমপ্রুভমেন্ট অব আরবান রোড ইন নর্থ ঢাকা সিটি করপোরেশন শীর্ষক প্রকল্পে কুয়েত ফান্ডের এ অর্থ ব্যয় হবে। এর আওতায় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মিরপুর, মোহাম্মদপুর, আগারগাঁও এবং ভাষানটেক এলাকার অবকাঠামো সংস্কার করা হবে। এসব এলাকার সড়ক, ফুটপাত ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়ন করা হবে; স্থাপন করা হবে সড়কবাতি। এর ফলে দুর্ঘটনা ও যানজট কমে আসবে বলে আশা প্রকাশ করা হয় চুক্তি অনুষ্ঠানে। অনুষ্ঠানে আরও জানানো হয়, এ বিষয়ে নেয়া প্রকল্পটির ব্যয় ধরা হয়েছে ৩১০ কোটি ২৬ লাখ টাকা। এর মধ্যে কুয়েত ফান্ড দেবে ২৭৯ কোটি ৫১ লাখ টাকা। বাকি ৩০ কোটি ৭৫ লাখ টাকা সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে ব্যয় করা হবে। স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের আওতায় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন ২০১৭ সালের জুনের মধ্যে প্রকল্পের কাজ শেষ করবে। কুয়েত ফান্ডের ঋণ পরিশোধে সময় পাওয়া যাবে ২৫ বছর। এর মধ্যে রেয়াতকাল ধরা হয়েছে ৫ বছর। রেয়াতকাল পরবর্তী সময়ে বার্ষিক দেড় শতাংশ হারে সুদ ধরা হয়েছে। ঋণের সার্ভিস চার্জ ধরা হয়েছে শূন্য দশমিক ৫ শতাংশ। কুয়েত ফান্ড ১৯৭৪ সাল থেকে বাংলাদেশকে আর্থিক সহায়তা দিয়ে আসছে। এ ফান্ড সাধারণত অনুদান ও ঋণ আকারে বাংলাদেশকে আর্থিক সহায়তা দেয়।