বিনা খরচে মাসে ১০ হাজার কর্মী নেবে সৌদি আরব

বিনা খরচে প্রতিমাসে বাংলাদেশ থেকে ১০ হাজার শ্রমিক সৌদি আরব যেতে পারবে বলে জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন। সৌদি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক শেষে সোমবার সকাল সোয়া ১০টায় তিনি সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

রাজধানীর ইস্কাটনে প্রবাসী কল্যাণ ভবনে সোমবার সকাল ৯টায় কর্মী নেয়া প্রক্রিয়া ও অভিবাসন ব্যয় নির্ধারণসহ সামগ্রিক বিষয় চূড়ান্ত করতে সৌদি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠকে বসেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী।

মন্ত্রী বলেন, গৃহস্থালীর কাজে বাংলাদেশ থেকে প্রতিমাসে ১০ হাজার কর্মী সৌদি আরব যেতে পারবে। এ জন্য তাদের কোনো টাকা-পয়সা লাগবে না। তাদের সব ব্যয় বহন করবে সংশ্লিষ্ট সৌদি কোম্পানি। তিনি বলেন, শুধু পাসপোর্ট ও মেডিকেলসহ আনুসঙ্গিক খরচ বাবদ ১৫-২০ হাজার টাকা লাগতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে।

দীর্ঘ ৭ বছর বন্ধ থাকার পর গত ১ ফেব্রুয়ারি সৌদি আরবের রাজকীয় সভায় বাংলাদেশের ওপর থেকে শ্রমিক নেয়ার বিষয়ে আরোপিত নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়া হয়। এরই ফলে কর্মী নিয়োগের প্রক্রিয়া চূড়ান্ত করতে দেশটির ১৬ সদস্যের প্রতিনিধিদল রোববার বাংলাদেশ সফরে আসে। সৌদি আরবের শ্রম মন্ত্রণালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের উপমন্ত্রী আহমেদ এফ আলফাহিদ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন।

এদিকে সৌদি আরবে যেতে ইচ্ছুক কর্মীদের (পুরুষ ও নারী) নাম নিবন্ধনের জন্য সোমবার থেকে রাজধানীর আগারগাঁওয়ের বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে চার দিনব্যাপী ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড মেলার আয়োজন করেছে জনশক্তি রফতানি ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো (বিএমইটি)। মেলা চলবে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড মেলা উদ্বোধন করার কথা রয়েছে।

প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, মেলায় প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ৬০ নম্বর প্যাভিলিয়নে দুইশ’ টাকায় নাম নিবন্ধন করা যাবে। এ ছাড়া রাজধানীর ইস্কাটনে প্রবাসী কল্যাণ ভবন এবং দেশের সব জেলার কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসে এই নিবন্ধন প্রক্রিয়া চলবে। জনশক্তি রফতানি ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর (বিএমইটি) পক্ষে জাতীয় দৈনিক এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশ করা হয়।

সৌদি আরব বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ শ্রমবাজার। দেশটিতে ২০ লাখের বেশী বাংলাদেশী কর্মরত রয়েছেন। ২০০৮ সালে বাংলাদেশী শ্রমিক নেওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিল সৌদি আরব।