পাঁচ সিটি করপোরেশনের উন্নয়নে ৩০০০ কোটি টাকা

দেশের পাঁচটি সিটি করপোরেশনে নাগরিক সেবার মান বাড়ানো ও অবকাঠামো উন্নয়নের জন্য প্রায় তিন হাজার কোটি টাকা ব্যয়ের একটি প্রকল্পের উদ্বোধন করেছে প্রকল্প বাস্তবায়নকারী সংস্থা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)। রোববার এলজিইডি ভবনে ‘সিটি গভর্ন্যান্স’ নামে এ প্রকল্পের উদ্বোধন উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

নারায়ণগঞ্জ, কুমিল্লা, রংপুর, গাজীপুর ও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন সিটি গভর্ন্যান্স প্রকল্পের আওতায় থাকবে। প্রকল্পে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে দুই হাজার ৯৪৩ কোটি টাকা। এর মধ্যে জাইকা ঋণ দেবে দুই হাজার ৩৯৮ কোটি টাকা। সরকারের ব্যয় ধরা হয়েছে ৫৪৫ কোটি টাকা। প্রকল্পটি চলতি অর্থবছরে শুরু হয়ে ২০২০ সালের জুনে শেষ হওয়ার কথা। এরই মধ্যে জাইকার সঙ্গে সরকারের ঋণচুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বিশেষ অতিথি ছিলেন জাপানের রাষ্ট্রদূত শিরো সাদোশিমা, স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব মনজুর হোসেন ও জাইকার প্রধান প্রতিনিধি মিকিউ হাতায়েদা। এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলী ওয়াহিদুর রহমান এতে সভাপতিত্ব করেন। পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, পৃথিবীর সব শহরেরই একটা নিজস্বতা রয়েছে; রয়েছে ঐতিহ্য ও ইতিহাস। এসব কিছুর ওপর ভিত্তি করেই সে শহরের শাসন ব্যবস্থাপনা ও অবকাঠামো গড়ে ওঠে। এ কথা মাথায় রেখেই সরকার সিটি গভর্ন্যান্স প্রকল্পটি হাতে নেয়। প্রকল্পটি যাতে সুষ্ঠুভাবে ও সময়মতো সম্পন্ন হয়, তার তাগিদ গিয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী উপস্থিত সিটি মেয়রদের উদ্দেশে বলেন, তারা যাতে প্রকল্পটির গুণগত মান নিশ্চিত করেন এবং সে সঙ্গে অপচয় ও দুর্নীতি রোধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেন। শহরের যেসব জায়গা এরই মধ্যে অবৈধ দখলের আওতায় চলে গেছে, জনপ্রতিনিধি হিসেবে তা আবার পুনরুদ্ধার করতে মেয়রদের প্রতি আহ্বান জানান মন্ত্রী।
শিরো সাদোশিমা বলেন, একটি শহরকে শহর হিসেবে গড়ে তুলতে হলে ওই সমাজ-সম্প্রদায়ের মূল্যবোধ, ঐতিহ্য ও ইতিহাসকে প্রাধান্য দিয়ে শাসন ব্যবস্থা গড়ে তুলতে হয়। এভাবে শাসন ব্যবস্থা গড়ে উঠলে তখন শহর টেকসই উন্নয়নের ভিত্তিতেই গড়ে ওঠে। এর ফলে শহরে বসবাসরত মানুষেরও উৎপাদন সামর্থ্য বৃদ্ধি পায়। তিনি এ সময় জাপানের কানাজাওয়া শহরের উদাহরণ দিয়ে বলেন, সাংস্কৃতিক মূল্যবোধ ও ঐতিহ্যকে প্রাধান্য দিয়ে এ শহর গত চারশ’ বছর ধরে যুদ্ধসহ মানবসৃষ্ট সব ধরনের দুর্যোগকে সফলতার সঙ্গে মোকাবেলা করে আসছে। মিকিও হাতায়েদা বলেন, নিবিড় শাসন ব্যবস্থা ধারণা থেকেই সিটি গভর্ন্যান্স প্রকল্পটি হাতে নেওয়া হয়েছে এবং জাইকা এতে সম্পৃক্ত হয়েছে। জাইকার ঋণের সুদ ধরা হয়েছে শূন্য দশমিক শূন্য ১ ভাগ।