বিনামূল্যে সার-বীজ পাবে ২ লাখেরও বেশি কৃষক

সম্প্রতি উজানের ঢলে ক্ষতিগ্রস্ত ১৪টি জেলায় কৃষি পুনর্বাসন ও প্রণোদনা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে সরকার। এই কর্মসূচির আওতায় মোট দুই লাখ পাঁচ হাজার ১৫ জন ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকের মাঝে ২৩ কোটি ৯৭ লাখ ২১৫ টাকা ৫০ পয়সা মূল্যের দুই লাখ পাঁচ হাজার ১৫ বিঘা জমির জন্য বীজ ও রাসায়নিক সার বিনামূল্যে সরবরাহ করা হবে।

এর মধ্যে উত্তরাঞ্চলে ৮৬ হাজার ৪৭৫ জন ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকের জন্য আট কোটি ৪৮ লাখ ৮৯ হজার ২১৮ টাকা মূল্যের ৮৬ হাজার চারশ ৭৫ বিঘা জমি এবং উত্তরাঞ্চলের জন্য একলাখ ১৮ হাজার ৫৪০ জন কৃষকের জন্য একলাখ ১৮ হাজার ৫৪০ বিঘা জমির জন্য ১৫ কোটি ৪৮ লাখ ৮৯ হাজার নয়শ’ ৭৫ টাকা ৫০ পয়সা বরাদ্দ রয়েছে।

রোববার কৃষি মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী এ তথ্য জানান।

তিনি আরও জানান, কৃষি পুনর্বাসন ও প্রণোদনা কর্মসূচি থেকে মোট ফসল উৎপাদন হবে গম ৩৩০৬৯ দশমিক ছয় মেট্রিক টন, ভুট্টা ২৩৮৫৮ দশমিক ৬৭ মেট্রিক টন, সরিষা ৩৪৫৬ দশমিক ৪৪ মেট্রিক টন, খেসারি ডাল ১৭৯২ দশমিক ৮১ মেট্রিক টন, ফেলন ডাল ১২৪২ দশমিক ৭৭ মেট্রিক টন, বোরো ( চাল) ১৫৭৭৮ মেট্রিকটন এবং বোরো ধানের খড় ৪,৫০৮ মেট্রিক টন।

প্রাকৃতি কোনো দুর্যোগ বা পোকামাকড়ের উপদ্রপ না হলে এই পুনর্বাসন ও প্রনোদনা প্রকল্প খাত থেকে চলতি রবি মৌসুমে উৎপাদিত ফসল থেকে ১৮৯ কোটি ৩৭ লাখ ২৭ হাজার টাকা আয় হবে বলে মন্ত্রী জানান। তিনি বলেন, ‘ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক স্বস্থির নিঃশ্বাস ফেলতে পারবে এবং উজানের ঢলের ক্ষতি পুষিয়ে উঠবে।’

মন্ত্রী জানান, প্রস্তাবিত এ পুনর্বাসন ও প্রনোদনা কর্মসূচিতে ব্যয়কৃত অর্থ কৃষি মন্ত্রণালয়ের বাজেট বরাদ্দ হতে ব্যয় করা হবে। এর জন্য কোনো অতিরিক্ত বরাদ্দের প্রয়োজন হবে না বলে মতিয়া চৌধুরী জানান।