সৈয়দপুরের ক্ষুদ্র পোশাক কারখানা: জামানতহীন ঋণ পাবেন ৩০০ ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা

দেশের উত্তরাঞ্চলের নীলফামারীর সৈয়দপুরের ঝুট কাপড় থেকে পোশাক প্রস্তুতকারক কারখানার উদ্যোক্তাদের জন্য আড়াই কোটি টাকা ছাড় করেছে শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন সংস্থা এসএমই ফাউন্ডেশন।এই অর্থ থেকে সৈয়দপুরের প্রায় ৩০০ উদ্যোক্তা ৯ শতাংশ সুদে জামানতবিহীন ঋণ পাবেন। একজন উদ্যোক্তা ৫০ হাজার টাকা থেকে সর্বোচ্চ ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণ পাবেন। আর উদ্যোক্তারা এই ঋণ পাবেন এনসিসি ব্যাংকের কাছ থেকে। এ বিষয়ে গত মঙ্গলবার এসএমই ফাউন্ডেশন ও এনসিসি ব্যাংকের মধ্যে আনুষ্ঠানিক চুক্তি সই হয়েছে।ঢাকায় এসএমই ফাউন্ডেশনের কার্যালয়ে ওই অনুষ্ঠানে নিজ নিজ প্রতষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে সই করেন এসএমই ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ মো. ইহসানুল করিম এবং এনসিসি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক গোলাম হাফিজ আহমেদ। এ সময় সৈয়দপুরের ক্ষুদ্র পোশাক কারখানার দুটি সংগঠনের নেতারাও উপস্থিত ছিলেন।এসএমই ফাউন্ডেশন জানিয়েছে, ফাউন্ডেশনের ক্রেডিট হোলসেলিং প্রোগ্রামের আওতায় সৈয়দপুরের এই উদ্যোক্তাদের মধ্যে এক অঙ্কের সুদে অর্থায়ন কর্মসূচির আওতায় এ ঋণ দেওয়া হচ্ছে। প্রথম পর্যায় সফলভাবে শেষ হওয়ায় দ্বিতীয় পর্যায়ে ঋণ দেওয়া হলো। প্রথম দফায় এই উদ্যোক্তাদের এক কোটি ৫৫ লাখ টাকার ঋণ দেওয়া হয়েছিল।সৈয়দপুরের এই ক্ষুদ্র পোশাকপল্লিতে প্রায় ৫০০ উদ্যোক্তা আছেন। এতে পাঁচ হাজার জনের কর্মসংস্থান হয়েছে। ঢাকার বিভিন্ন পোশাক কারখানা থেকে ঝুট কাপড় কিনে এনে তা দিয়ে শার্ট, প্যান্ট, জ্যাকেটসহ বিভিন্ন ধরনের পোশাক তৈরি হয় এখানে। আর দেশি চাহিদা মিটিয়ে এসব পোশাক ভারত, ভুটান ও নেপালে রপ্তানিও হচ্ছে।