আজ বিশ্বের সর্ববৃহৎ ওয়েবপোর্টাল তথ্য বাতায়ন উদ্বোধন

ঢাকা, ২৩ জুন, এবিনিউজ : বাংলাদেশে তৈরি করা হয়েছে বিশ্বের সর্ববৃহৎ ওয়েবপোর্টাল ‘বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন’। আজ সোমবার এ ওয়েব সাইটটি আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হবে। দুপুর সাড়ে ১২টায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে তার তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় এ ওয়েবসাইটের উদ্বোধন করবেন। বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন সংস্থার প্রায় ২৫ হাজার ওয়েবসাইটের সমন্বয়ে গঠিত হয়েছে এ ওয়েবপোর্টালটি। এ উপলক্ষে আজ রবিবার রাজধানীর একটি হোটেলে বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউট ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একসেস টু ইনফরমেশন প্রকল্প গণমাধ্যমের প্রধানদের সঙ্গে মতবিনিময়ের আয়োজন করে। মতবিনিময় সভায় বিভিন্ন পত্রিকার সম্পাদক, ইলেকট্রনিক মিডিয়ার কর্মরত সাংবাদিকরা তাদের মতামত তুলে ধরেন।
অনুষ্ঠানের শুরুতে ওয়েবপোর্টালের অন্তর্ভুক্ত বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন একসেস টু ইনফরমেশন প্রকল্পের পরিচালক কবির বিন আনোয়ার। তিনি বলেন, আমরা খোঁজ নিয়ে দেখেছি- এ ওয়েবপোর্টালটি বিশ্বে সর্ববৃহৎ। কারণ, এখানে ৬১টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগ, ৩৪৫টি অধিদপ্তর, বিভাগ, জেলা, উপজেলা, ইউনিয়নসহ মোট ২৫ হাজার ওয়েবসাইট নিয়ে গঠিত। তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ বলেন, এ ওয়েবপোর্টালের তথ্য সংগ্রহ করতে আড়াই বছর লেগেছে। লাল ফিতার দৌরাত্ম্য ও দুর্নীতি কমিয়ে জনসেবা দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ার জন্য এ ধরনের ওয়েবপোর্টাল করা হয়েছে। এ জন্য সরকারের শীর্ষ জায়গা থেকে সরকারি কর্মকর্তাদের মনোভাব পরিবর্তনের আহ্বান জানানো হয়েছে।
তথ্যসচিব মর্তুজা আহমদ বলেন, বাংলাদেশে তথ্য ও প্রযুক্তি খাতে নীরব বিপ্লব ঘটে গেছে। এ ধরনের ওয়েবসাইট জাতি গঠনে বিরাট ভূমিকা পালন করবে। আর এ প্রসঙ্গেত ভোরের কাগজ পত্রিকার সম্পাদক শ্যামল দত্ত বলেন, বর্তমানে চালুকৃত এ ওয়েবসাইটে দেখা গেছে অসংখ্য বানান ভুল ও তথ্য আপডেট নেই। তাই ওয়েবপোর্টালের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হলো নিয়মিত আপডেট করা। এটা নিয়মিত আপডেট ও বানান সংশোধন করা না হলে কেউ এখানে ঢুকবে না।
আলোচনায় অংশ নিয়ে এটিএন নিউজের সহযোগী প্রধান বার্তা সম্পাদক প্রভাষ আমীন বলেন, সঠিক তথ্যের জন্য আমরা যদি এ ওয়েবপোর্টালের ওপর নির্ভর করতে না পারি, তাহলে এখানে কেউ ঢুকবে না। তিনি এ ওয়েবপোর্টালে বিভিন্ন গ্রন্থাগার, নামকরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও শিক্ষামূলক ওয়েবসাইটের লিংক দেয়ারও আহ্বান জানান।
এছাড়া একাত্তর টেলিভিশনের প্রধান নির্বাহী সামিয়া জামান বলেন, এটা শুধু সরকারি উদ্যোগ নয়, জাতীয় উদ্যোগ। তাই জাতীয়ভাবে এটাকে পরিচিতি দিতে হবে। তাহলে এ বিষয়ে কোনো প্রশ্ন উঠবে না। পরিশেষে বক্তাদের বিভিন্ন অভিযোগের বিষয়ে একসেস টু ইনফরমেশন প্রকল্পের পরিচালক কবির বিন আনোয়ার বলেন, আমরা খোলা মনে কাজ করছি। শুরুটা করেছি, যথাসাধ্য চেষ্টা করব সবকিছু ঠিকঠাক চালাতে।
মতবিনিময় সভায় অন্যান্যের মথ্যে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রীর গণমাধ্যম-বিষয়ক উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, সাংবাদিক রাহাত খান, দৈনিক সংবাদ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক খন্দকার মুনীরুজ্জামান, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) সভাপতি আলতাফ মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক কুদ্দুস আফ্রাদ প্রমুখ। মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউটের পরিচালনা বোর্ডের সভাপতি হাবিবুর রহমান মিলন। ওয়েব পোর্টালটির ঠিকানা হচ্ছে- বাংলাদেশ ডট গভ ডট বিডি (www.bangladesh.gov.bd)।