বিশ্বব্যাংক ২৮০ কোটি ডলার ঋণ সহায়তা দেবে

বাংলাদেশকে ২৮০ কোটি ডলারের ঋণ সহায়তা প্রদানের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে বিশ্বব্যাংক। চলতি অর্থবছরের মধ্যেই এই অর্থ দেয়া হবে। কোন একটি একক অর্থবছরে এ পরিমাণ ঋণ সহায়তা এটাই সর্বোচ্চ।
মঙ্গলবার সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান, বিশ্বব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট ফিলিপ লি হোয়েরো।
বাংলাদেশের অর্থনীতির প্রশংসা করে বিশ্বব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট বলেন, বাংলাদেশ অর্থনীতিতে এগিয়ে যাওয়ার প্রধান কারণ হচ্ছে এখানকার মানুষের উদ্যোক্তাসুলভ মানসিকতা এবং বাংলাদেশের জনগণ পরিশ্রমী। আগামী অর্থবছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার ৬ দশমিক ৫ শতাংশেরও বেশি হবে বলে পূর্বাভাস দেন তিনি। দেশের তৈরি পোশাকশিল্প প্রসঙ্গে ফিলিপ লি হোয়েরো বলেন, তৈরি পোশাকের ক্ষেত্রে চীনের পরই বাংলাদেশের অবস্থান। তবে এক্ষেত্রে রফতানি বাড়ানোর পাশাপাশি পোশাকশিল্পকে একটি নিয়ন্ত্রক কাঠামোর মধ্যে নিয়ে আসা দরকার।
পদ্মা সেতু প্রসঙ্গে বিশ্বব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট বলেন, বাংলাদেশ সরকার নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ করছে। কোন একটি খাতে অর্থ ব্যয় করলে অন্য খাতে অর্থায়ন করাটা কঠিন হয়ে পড়ে। বিশ্বব্যাংক পদ্মা সেতুতে অর্থায়ন না করলেও অন্য বিভিন্ন খাতে অর্থায়ন করছে।
আর অর্থায়ন নয়, বাস্তবায়নটাই আসল কথা। তিনি বলেন, ২০২১ সাল নাগাদ বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করার যে উদ্যোগ বাংলাদেশ সরকার নিয়েছে, এতে আমাদের সমর্থন রয়েছে। তবে এ জন্য অবকাঠামো ও বিদ্যুত খাতের ওপর সবচেয়ে বেশি জোর দিতে হবে। বাংলাদেশের সঙ্গে বিশ্বব্যাংকের সম্পর্ক আরও বেড়েছে বলে মন্তব্য করেন বিশ্বব্যাংকের এই ভাইস প্রেসিডেন্ট। – অর্থনৈতিক রিপোর্টার