প্রথমার্ধে বেপজায় বিনিয়োগ বেড়েছে সাড়ে ২৬ শতাংশ

নানা প্রতিকূলতা সত্ত্বেও বাংলাদেশ রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকা কর্তৃপক্ষের (বেপজা) বিনিয়োগ ও রপ্তানি বেড়েছে। চলতি অর্থবছরের প্রথমার্ধে বেপজার অধীন ৮টি রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকার (ইপিজেড) বিনিয়োগ বেড়েছে সাড়ে ২৬ শতাংশ। পাশাপাশি রপ্তানিও বেড়েছে ১৯ দশমিক ৯৬ শতাংশ। বেপজার অধীনস্থ দেশের ৮টি ইপিজেডে চালু ও বাস্তবায়নাধীন শিল্পসমূহে চলতি অর্থবছরের জুলাই-ডিসেম্বর প্রান্তিকে মোট বিনিয়োগ হয়েছে ১৯ কোটি ২ লাখ ৩০ হাজার মার্কিন ডলার। অন্যদিকে বিগত অর্থবছরের একই সময়ে বিনিয়োগের পরিমাণ ছিল ১৫ কোটি ৩ লাখ ৭০ হাজার মার্কিন ডলার। এর মধ্যে চট্টগ্রাম ইপিজেডে বিনিয়োগ হয়েছে ৪ কোটি ৪৯ লাখ মার্কিন ডলার, ঢাকা ইপিজডে ৬ কোটি ৩৯ লাখ ২০ হাজার মার্কিন ডলার, কর্ণফুলী ইপিজেডে ১ কোটি ৯০ লাখ ৫০ হাজার মার্কিন ডলার, আদমজী ইপিজেডে ৪ কোটি ৯ লাখ ৩০ হাজার মার্কিন ডলার, উত্তরা ইপিজেডে ৮৬ লাখ ৮০ হাজার মার্কিন ডলার, কুমিল্লা ইপিজেডে ৬৫ লাখ ৯০ হাজার মার্কিন ডলার, ঈশ্বরদী ইপিজেডে ১৯ লাখ ৯০ হাজার মার্কিন ডলার এবং মংলা ইপিজেডে ৪১ লাখ ৭০ হাজার মার্কিন ডলার। বেপজার অধীন দেশের ৮টি ইপিজেডে ২০১৩ পর্যন্ত পুঞ্জীভূত বিনিয়োগ হয়েছে ২৯৭ কোটি ৫৭ লাখ ১০ হাজার মার্কিন ডলার। এদিকে ২০১৩-১৪ অর্থবছরের প্রথমার্ধে ইপিজেডের চালু শিল্প প্রতিষ্ঠানসমূহ থেকে ২৫৯ কোটি ৮৫ লাখ ৬০ হাজার মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য রপ্তানি হয়েছে। ২০১২-১৩ অর্থবছরের প্রথমার্ধে এ রপ্তানির পরিমাণ ছিল ২২৪ কোটি ৮ লাখ ৭০ হাজার মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য। এতে গত বছরের তুলনায় রপ্তানি বেড়েছে ১৫ দশমিক ৯৬ শতাংশ। উল্লেখ্য, বর্তমানে বেপজার অধীন ৮টি ইপিজেডে ৪২৫টি শিল্প চালু এবং ১৩৬টি বাস্তবায়নাধীন অবস্থায় আছে। ২০১৩-১৪ অর্থবছরের প্রথম ৬ মাসে ৮টি ইপিজেডে ৮ হাজার ১৮ জন বাংলাদেশি নাগরিকের কর্মসংস্থান হয়েছে। এছাড়া ৮টি ইপিজেডে ৩ লাখ ৮১ হাজার ২৬২ জন বাংলাদেশি নাগরিক কর্মরত আছেন। এর মধ্যে ৬৪ শতাংশ নারী।