বিশ্বের সুখী দেশের তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ১১তম।

বিশ্বের সুখী দেশের তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ১১তম। গত বুধবার এই তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে।

যুক্তরাজ্যের বেসরকারি সংস্থা নিউ ইকোনমিকস ফাউন্ডেশন ২০০৬ সাল থেকে প্রতিবছর সুখী দেশের তালিকা প্রকাশ করছে। মানুষের গড় আয়ু, সুখ-সমৃদ্ধি এবং উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে পরিবেশগত প্রভাবসহ বিভিন্ন বিষয় বিবেচনায় নিয়ে ‘হ্যাপি প্লানেট ইনডেক্স’ শীর্ষক এই তালিকা তৈরি করা হয়।

২০১২ সালে ১৬১টি দেশের তালিকায় ৮৯ পয়েন্ট নিয়ে প্রথম অবস্থানে আছে কোস্টারিকা। লাতিন আমেরিকার এই দেশ সম্পর্কে বলা হয়েছে, মানব উন্নয়ন সূচকে দেশটি ধারাবাহিকভাবে উন্নতি করছে। লাতিন আমেরিকার দেশগুলোর মধ্যে এ ক্ষেত্রে তাদের অবস্থান শীর্ষে। মাথাপিছু আয়ের দিক থেকে সমান হওয়া সত্ত্বেও ওই অঞ্চলের অন্যান্য দেশের তুলনায় পরিবেশগত স্থিতিশীলতা রক্ষা এবং বৈষম্য বিলোপে এগিয়ে আছে কোস্টারিকা।

এর পরপরই আছে যথাক্রমে ভিয়েতনাম ও কলম্বিয়া। দেশ দুটির পয়েন্ট যথাক্রমে ৬৪ ও ৬০ দশমিক ৪। আর নিচের দিক থেকে ১৫১, ১৫০ ও ১৪৯তম দেশ যথাক্রমে বতসোয়ানা, চাদ ও কাতার।

৫৬ দশমিক ৩ পয়েন্ট নিয়ে তালিকায় ১১তম অবস্থানে আছে বাংলাদেশ। আর বাংলাদেশের প্রতিবেশী ভারতের অবস্থান ৩২তম। তবে সাম্প্রদায়িক সংঘাত এবং একের পর এক জঙ্গি হামলা সত্ত্বেও এগিয়ে আছে পাকিস্তান। তাদের অবস্থান ১৬তম।

তবে সুখের তালিকায় যুদ্ধ ও হানাহানিতে জর্জরিত আফগানিস্তান এবং তাদের ওপর হামলাকারী যুক্তরাষ্ট্রের তফাত খুবই সামান্য। তালিকায় আফগানিস্তান আছে ১০৯তম স্থানে, আর যুক্তরাষ্ট্র ১০৫।