বয়স্কদের ‘জ্যেষ্ঠ নাগরিক’ ঘোষণা করবে সরকার

দেশের বয়স্ক লোকদের ‘জ্যেষ্ঠ নাগরিক’ ঘোষণা করার লক্ষ্যে সরকার কাজ করছে বলে জানিয়েছেন সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। 

বয়স্কদের জন্য আন্তর্জাতিক দিবসের আগের দিন রোববার রাজধানীতে এক গোলটেবিল বৈঠকে এ তথ্য জানান সমাজকল্যাণ সচিব রণজিৎ কুমার বিশ্বাস। 

তিনি বলেন, বয়স্কদের নিয়ে কাজ করা সংস্থাগুলো দীর্ঘদিন ধরে এ ঘোষণার জন্য দাবি জানিয়ে আসছে। বয়স্কদের নিয়ে কাজ করার জন্য ইতিমধ্যে প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে একটি জাতীয় কমিটি গঠন করা হয়েছে। আশা করছি মধ্য অক্টোবরে কমিটির প্রথম বৈঠকের অনুষ্ঠিত হবে। 

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, সারা বিশ্বে ৬০ বছর বয়সী মানুষের সংখ্যা ৬০ কোটি। ২০২৫ সালের মধ্যে এ সংখ্যা দ্বিগুন হবে এবং ২০৫০ সালে তা ২০০ কোটিতে দাঁড়াবে, যার বেশিরভাগই থাকবে উন্নয়নশীল বিশ্বে। 

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর হিসাবমতে, বাংলাদেশে ৬০ বছর বা তদোর্ধ্ব বয়সের মানুষের সংখ্যা প্রায় দেড় কোটি যা মোট জনসংখ্যার ৭ দশমিক চার শতাংশ। দেশে মানুষের গড় আয়ু বর্তমানে ৬৮ বছর। 

সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী প্রমোদ মানকিন বলেন, বয়স্ক মানুষদের জ্যেষ্ঠ নাগরিক ঘোষণা করা হবে বয়স্কদের নিয়ে ভবিষ্যৎ কাজের শুভ সূচনা। 

সমাজকল্যাণ বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য এ এন মাহফুজা খাতুন বেবি মওদুদ বষস্ক মানুষদের ‘জাতীয় সম্পদ’ হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, “আমরা যদি এই সম্পদ রক্ষা করতে পারি তাহলে আমাদের তরুণরা তাদের অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নিয়ে সামনে অগ্রসর হতে পারবে।” 

তিনি বয়স্কদের সহযোগিতায় এগিয়ে আসতে ব্যবসায়ীদের আহ্বান জানান। 

বয়স্ক নারীদের দুর্দশার প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করে তিনি তাদেরকে ‘সবচেয়ে অসহায়’ আখ্যা দেন। এ বিষয়ে সংসদে সোচ্চার ভুমিকা পালন করার প্রতিশ্রুতি দেন এই সংসদ সদস্য । 

অনুষ্ঠানের আয়োজক বেসরকারি সংস্থা রিসোর্স ইন্টিগ্রেশন সেন্টারের (রিক) পরিচালক আবুল হাসিব খান বলেন, বয়স্কদের জ্যেষ্ঠ নাগরিক ঘোষণা করলে সরকারের বাড়তি কোনো খরচ হবে না। 

“এর ফলে তারা কিছু ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পাবেন। ধরুন, তারা বাস টার্মিনালে তারা টিকেট পাওয়ার ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পাবেন।”


source