২০১৬ সালের মধ্যে বাংলাদেশে আসছে ১১টি শীর্ষস্থানীয় আন্তর্জাতিক হোটেল চেইন

দেশের আতিথেয়তা শিল্পে অব্যাহত উন্নতির প্রেক্ষাপটে বেসরকারি বিনিয়োগকে সঠিক লক্ষ্যে প্রবাহিত করার জন্য প্রয়োজনীয় সরকারি নীতি কাঠামো প্রণয়নের জন্য আহ্বান জানিয়েছেন মুক্ত আলোচনায় অংশগ্রহণকারী বক্তারা। সমপ্রতি রাজধানীর একটি হোটেলে ভ্রমণ বিষয়ক পাক্ষিক— দ্য বাংলাদেশ মনিটর ‘বাংলাদেশে আতিথেয়তা শিল্প শীর্ষক’ এ মুক্ত আলোচনার আয়োজন করে। বেসরকারি বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী মোঃ ফারুক খান, এমপি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। দি বাংলাদেশ মনিটর সম্পাদক কাজী ওয়াহিদুল আলম আলোচনা অনুষ্ঠানটি সঞ্চালন করেন। বক্তারা জানান, ২০১৬ সাল নাগাদ ঢাকা, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারে ১১টি শীর্ষস্থানীয় আন্তর্জাতিক হোটেল চেইনের ব্যবস্থাপনায় আরো ১৭শ’টি উন্নতমানের হোটেল রুম পাওয়া যাবে।

দ্য বাংলাদেশ মনিটর প্রধান সম্পাদক রাকিব সিদ্দিকী বাংলাদেশে আতিথেয়তা শিল্পের অতীত  ও বর্তমান চিত্র তুলে ধারার মাধ্যমে মুক্ত আলোচনার সূত্রপাত করেন। দেশের আতিথেয়তা শিল্পের সাথে জড়িত বিভিন্ন উদ্যোক্তা ও ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে নিয়োজিত বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উন্মুক্ত আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন। এদের মধ্যে ছিলেন প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলের মহাব্যবস্থাপক ই জে ম্যাকইভান, দ্য ওয়েস্টিন ঢাকার মহাব্যবস্থাপক আজিম শাহ, ওশেন প্যারাডাইজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম এন করিম, অরুনিমা গল্ফ রিসোর্টের চেয়ারম্যান খবির উদ্দিন আহমেদ, হোটেল সি ক্রাউনের চেয়ারম্যান মোঃ ফজলুল হক, প্রাসাদ প্যারাডাইজ হোটেল এন্ড রিসোর্টের চেয়ারম্যান সৈয়দ এনামুল করিম প্রমুখ।

NewImage