২০১৫ সালের মধ্যে টেলিটক থ্রিজির বাণিজ্যিক সংযোগ

টেলিটকের থ্রিজি এবং ফোরজি সেবার বাণিজ্যিক সংযোগ ২০১৫ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে দেওয়া হবে বলে সংসদে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী রাজিউদ্দিন আহমেদ রাজু।

রোববার নেত্রকোণা-১ আসনের সংসদ সদস্য মোশতাক আহমেদ রুহীর এক প্রশ্নের জবাবে টেলিযোগাযোগমন্ত্রী বলেন, “২০১৫ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে টেলিটকের থ্রিজি প্রযুক্তি চালুকরণ এবং ২ দশমিক ৫জি সম্প্রসারন প্রকল্পের মাধ্যমে থ্রিজি ও ফোরজি প্রযুক্তির মোবাইল নেটওয়ার্কের বাণিজ্যিক সংযোগ দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে।”
এই প্রকল্পের বাস্তবায়নকাল দুই বছর নির্ধারণ করা হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, খুব শিগগিরই টেলিটক থ্রিজি নেটওয়ার্ক স্থাপন করবে। প্রকল্পটি শেষ হলে ৬৫ লাখ গ্রাহক টেলিটক নেটওয়ার্কের আওতাভুক্ত হবে।

রাষ্ট্রায়ত্ব প্রতিষ্ঠান হিসেবে টেলিটক অন্য অপারেটররা বাজারে আসার আগেই গত মার্চ থেকে পরীক্ষামূলক থ্রি-জি সেবা দেওয়ার অনুমতি পায়। তবে নানা কারণে তা পিছিয়ে যায়।

আগামী জুলাই মাসে পরীক্ষামূলকভাবে রাজধানীতে তিন লাখের বেশি গ্রাহককে তৃতীয় প্রজন্মের (থ্রি-জি) মোবাইল ফোন সেবা দেওয়ার প্রস্তুতি নিয়েছে রাষ্ট্রায়ত্ব অপারেটর টেলিটক।

থ্রিজি লাইসেন্সের প্রস্তাবিত খসড়া নীতিমালায় বলা হয়েছে, আগামী সেপ্টেম্বরে থ্রিজি স্পেকট্রামের নিলাম হবে। নিলামে অংশ না নিলেও টেলিটককে নিলামের সম পরিমান টাকা দিয়ে থ্রিজি স্পেকট্রাম নিতে হবে।

থ্রিজি প্রযুক্তির মাধ্যমে উচ্চগতিতে তথ্য পরিবহন সম্ভব হওয়ায় মোবাইল ফোনেই টিভি দেখা, জিপিএসের মাধমে পথ নির্দেশনা পাওয়া, উচ্চ গতির ইন্টারনেট ব্যবহারসহ ভিডিও কনফারেন্সে অংশ নেওয়া সম্ভব হবে।

সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য আহমেদ নাজমীন সুলতানার আরেক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ৩৮৯টি সরকারি কলেজ, ৮৩টি সরকারি-বেসরকারি মেডিকেল কলেজ, ৪৯টি পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট, ৩২টি বিশ্ববিদ্যালয় ও উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বর্তমানে টেলিটকের মাধ্যমে ভর্তি পরীক্ষা কার্যক্রম চলছে।

রাষ্ট্রীয় মোবাইল সেবাদাতা সংস্থাটি এ খাতে পাঁচ কোটি ৮৪ লাখ ৭৬ হাজার ১৬৯ টাকা আয় করেছে বলে জানান তিনি।
মহিলা সংসদ সদস্য ফরিদুন্নাহার লাইলীর এক প্রশ্নের জবাবে টেলিযোগাযোগমন্ত্রী রাজু জানান, বিগত সাড়ে তিন বছরে (জানুয়ারি ২০০৯ থেকে মে ২০১২) মোবাইল গ্রাহক বেড়েছে চার কোটি ৭৪ লাখ।

এই সময়ে টেলিটকের গ্রাহক বেড়েছে প্রায় চার লাখ।
টেলিটক ২৫টি দুর্গম পার্বত্য উপজেলায় নেটওয়ার্ক বিস্তার করেছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, বর্তমানে শতভাগ পার্বত্য এলাকা টেলিটকের নেটওয়ার্কে আওতাভুক্ত রয়েছে।