পাহাড়ি জমিতে কলা চাষে সাফল্য : পার্বত্যাঞ্চলে কৃষি অর্থনীতির নতুনদ্বার

রাঙামাটি জেলার ন্যাড়া পাহাড়ের ঢালে প্রায় দুই লক্ষ মে.টন কলা উৎপাদন করে এবছর রেকর্ড গড়েছে স্থানীয় কলা চাষীরা। পাহাড়ি জমির মাটি ও জলবায়ু কলা চাষের অনুকুল হওয়ায় কলা আবাদের সাফল্যে অনুপ্রাণিত চাষীরা জেলার প্রায় আট হাজার হেক্টর পাহাড়ি জমিতে কলার বাগান গড়ে তুলেছে।

সংশি­ষ্ট কলা চাষীরা জানান, চাঁপা, বাংলা, আনাজি ও সাগর এসব দেশীয় কলা চাষের প্রচুর সম্ভাবনা থাকায় পাহাড়ে কলা চাষের জনপ্রিয়তা বাড়ছে। তবে অর্থনৈতিকভাবে প্রান্তিক অবস্থানে থাকা পাহাড়ের কলা চাষীদের জন্য আরো বেশি সরকারি ও বেসরকারি পৃষ্ঠপোষকতা পাওয়া গেলে কৃষি নির্ভর এ অঞ্চলের স্বনির্ভরতায় অভাবনীয় সাফল্য বয়ে আনবে।

বছর দশেক আগেও এখানে শুধুমাত্র চাঁপা কলা আর বাংলা কলা ছাড়া অন্যান্য প্রজাতির কলা চাষ তেমন একটা হতোনা। পারিবারিকভাবে কেউ কেউ সীমিত পরিসরে সবরী ও সাগর কলার চাষ করে ভালো ফলাফল পেয়েছে। বর্তমানে রাঙামাটি জেলার বিভিন্ন উপজেলায় ব্যাপকভাবে কলা চাষের দিকে ঝুঁকছে চাষীরা। বর্তমানে দেশীয় উন্নত জাতের কলা চাষ করে প্রতিটি কলাগাছ থেকেই আশাতীত ফলন পাওয়া যাচ্ছে।

জেলার প্রতিটি বাজারে বোট ভর্তি উন্নত জাতের কলা নিয়ে চাষীরা ভীড় জমাচ্ছে, এমন দৃশ্য প্রতিটি হাটবারে চোখে পড়ার মতো। দামও হাতের নাগালের মধ্যেই থাকায় ফরিয়া ও বেপারিরা প্রতিদিন শতাধিক ট্রাক ভর্তি করে জেলার বাইরে বাজারজাত করছে।

জেলার কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ জানিয়েছে, চলতি বছরে রাঙামাটি জেলায় ৭,৫০০ হেক্টর জমিতে কলার আবাদ হয়েছে। পাহাড়ি ঢালের জমি বিশেষ উপযোগী ও ফলন ভালো হওয়ায় চাষীরা ক্রমশঃ কলা চাষের প্রতি আগ্রহী হয়ে উঠছে। চলতি বছরে ১,৮৭,৫০০ মে.টন কলা উৎপাদনের রেকর্ড হয়েছে বলে কৃষি অফিস সূত্র জানিয়েছে। স্থানীয় জাতের এসব কলা এলাকার চাহিদা মিটিয়ে জেলার বাইরে চট্টগ্রাম ও ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের বাজারে সরবরাহ হচ্ছে।

এসব দেশীয় ফল পার্বত্য এলাকায় সাড়া বছর জুড়ে উৎপাদন হয়ে থাকে, তবে কোনো ফ্রুট প্রসেসিং কারখানা গড়ে না উঠায় চাষীরা ন্যায্য মূল্য থেকে বঞ্চিত হচ্ছে বলে সংশি­ষ্ট চাষীদের মধ্যে হতাশা রয়েছে। জেলার দশটি উপজেলা জুড়ে পাহাড়ি জমিতে প্রচুর কলা উৎপাদন হলেও বাঘাইছড়ি, লংগদু, নানিয়ারচর, বরকল, জুরাছড়ি, বিলাইছড়ি এসব উপজেলা বিশাল কর্ণফুলী হ্রদবেষ্টিত হওয়াতে নৌপথে জেলা সদরে এনে বাজারজাত করার ক্ষেত্রেও কলা চাষীরা নানা প্রতিবন্ধকতার সম্মুখীন হচ্ছে।

অক্টোবার ২৩, ২০১১