১০৯ নম্বরে কল দিয়ে বাল্যবিয়ে বন্ধ

মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের জাতীয় হেল্প লাইন ১০৯ নম্বরে কল দিয়ে এক স্কুলছাত্রীর বাল্যবিয়ে বন্ধ করা হয়েছে। সে উপজেলার মুন্ডুমালা সদরের সাদিপুর এলাকার একটি বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী।

জানা গেছে, রবিবার দিবাগত রাতে পার্শ্ববর্তী গ্রামের এক যুবকের সঙ্গে তার বিয়ের দিন ধার্য ছিল। কিন্তু ১৩ বছরের ওই মেয়ের বিয়ে মেনে নিতে পারেনি প্রতিবেশী অনেকেই। এদের মধ্যে একজন সচেতন ব্যক্তি মহিলাবিষয়ক অধিদপ্তরের জাতীয় হেল্প লাইন ১০৯ নম্বারে কল করে বাল্যবিয়ের খবর জানান।

পরে তানোর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাসরিন বানুকে মহিলাবিষয়ক অধিদপ্তর থেকে বাল্য বিয়ে বন্ধের জন্য জরুরি পদক্ষেপ নিতে বলা হয়। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) থানার একদল পুলিশ সদস্যসহ রবিবার দুপুরেই ওই ছাত্রীর বাড়িতে উপস্থিত হয়ে তার বিয়ে বন্ধ করে দেন। এ সময় বাড়িতে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে অন্যরা পালিয়ে যান।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাসরিন বানু জানান, মহিলাবিষয়ক অধিদপ্তর থেকে ফোন পাওয়ার পর বাল্যবিয়ে বন্ধের জন্য জরুরি পদক্ষেপ নেয়া হয়।